প্রথম পাতা

বিজেপি ও সিবিআই-এর রাজ্যকে অশান্ত করে তোলার চক্রান্তের প্রতিবাদে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি ধর্ণা

অম্বর ভট্টাচার্য, এবিপিতকমা, কলকাতা, ৪ঠা ফেব্রুয়ারি ২০১৯ ঃ         বহুবার কলকাতা পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমারকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বহুবার তলব করেও যখন পায়নি তখন শেষমেশ তাকে নিজের সরকারি কোয়াটার থেকে গ্রেফতার করতে বাধ্য হয় সিবিআই। কিন্তু তার গ্রেফতারের প্রতিবাদে ধর্ণা মঞ্চে বসলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। সামনেই লোকসভা নির্বাচন তাই কেন্দ্র সরকারে থাকা বিজেপি রাজ্যের উপর চাপ সৃষ্টি করতে রাজীব কুমারকে গ্রেফতার করেছে। তাদের ধারণা রাজীব কুমারের কাছে সারদাকান্ডের মূল নথি “লাল ডায়রি” রাখা ছিল আর সেই নথি তিনি নষ্ট করেছেন। এই আর্জি নিয়ে সিবিআই সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হলে কোর্ট জানায় তাদের এই অভিযোগ প্রমাণ করতে হবে। ইতিমধ্যে এসভিএফ-এর কর্ণধার ভেঙ্কটেশকে সিবিআই গ্রেফতার করেছে। তাদের অভিযোগ ভেঙ্কটেশ সারদাকর্তা সুদীপ্ত সেনকে দিয়ে মমতা ব্যানার্জির আঁকা ছবি অনেক টাকায় কিনিয়েছেন। এমনও জানা যায় আরও দুজন সাংবাদিকও এই সারদাকান্ডে গ্রেফতার হতে পারে। তবে রাজীব কুমারকে গ্রেফতার করাতে এভাবে রাস্তায় নেমে পড়বেন মমতা ব্যানার্জি তা বুঝতে পারেন নি সিবিআই এবং বিজেপি সরকার। ধর্মতলায় মমতা ধর্ণা মঞ্চ থেকে সারা রাজ্যের জন্য বার্তা দেন যাতে রাজ্যের সব ব্লকে এর প্রতিবাদ করে মিছিল করা হয়। ধর্ণা মঞ্চের পিছনেই আজ অস্থায়ী বিধানসভার কাজ সেরেছেন মুখ্যমন্ত্রী। আজ ছিল বাজেট পেশের দিন, এখানেই বসে মুখ্যমন্ত্রী ঠিক করে দেন বাজেটে কতটা কি হবে। এবং এই ধর্ণা মঞ্চ থেকেই পুলিশের বেশ কিছু পদস্থ অফিসারকে সম্মাণও জানানো হয়। মুখ্যমন্ত্রী জানান এই ধর্ণা মঞ্চ অনিদৃষ্টকালের জন্য করার কথা থাকলেও সামনে মাধ্যমিক পরীক্ষার জন্য তা ৮ই ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত হবে। রাজ্য রাজনীতির অনেকেই মনে করছেন মমতা ব্যানার্জির এই ধর্ণা মঞ্চ এবার হয়ে উঠবে বিজেপি বিরোধী জোট হওয়ার এক মজবুত প্ল্যাটফর্ম। এখান থেকেই বিজেপি বিরোধী সেই আওয়াজ উঠবে বিরোধীদের গলায়। ছবি ঃ বিশ্বজিত সাহা।

Leave a Reply