You cannot copy content of this page

নেট বিনোদনের নতুন প্রতিভা খোঁজা থেকে ওয়াব সিনেমায় নেটউড.টিভি

অম্বর ভট্টাচার্য, এবিপিতকমা, কলকাতা, ২৭শে নভেম্বর ২০১৯ : বিনোদন জগতে যতই প্রতিভা বাড়ছে ততই কাজ কমছে। টলিপাড়ায় চোখ রাখলে দেখা যায় নতুন প্রতিভাদের ভিড়, কিন্তু কাজ কোথায়? বাংলা ছবি তৈরিতে নির্দেশক থেকে প্রযোজকরা এগোলেও সিনেমা হলে সেই আগেরদিনের মত রজত জয়ন্তী আর দেখা যায় না। এর পিছনে কারণ একটাই, মানুষ সেভাবে সিনেমা হল থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছেন। কারও এত সময় নেই ২ ঘন্টা ধরে সিনেমা দেখবে। অধিকাংশ মানুষ এখন বাড়ির সোফায় বসে কফি বা চায়ের কাপে চুমুক দিতে দিতে টেলিভিশনে চোখ রাখতে ভালোবাসে।কিন্তু এবার সেই দুনিয়াটাও প্রায় শেষের দিকে।কাজ থাক আর না থাক, সকলের হাতে এখন অ্যানরয়েড ফোন আর তাই আজ বড় পর্দার আর ছোট পর্দার পাশাপাশি বিশ্বজুড়েই ঝড় উঠেছে নেট বিনোদন, বাংলা থেকে হিন্দি বিনোদনের জগতেও নেট বিনোদনের জনপ্রিয়তা বাড়ছে।এবার বিনোদনের খেলা বদলেছে। ব্যানারধারী, ব্র্যান্ডধারীরা থাকলেও হঠাৎ এই বিনোদন শিল্পে বহু ছোট সংস্থারা বাজিমাত করছে।

সাম্প্রতিক মধ্য কলকাতার এক পাঁচতারা হোটেলে সাংবাদিক সম্মেলনে এমনই এক নেট বিনোদন সংস্থা নেটউড.টিভি তাঁদের লোগো প্রকাশ করলো। সংস্থার প্রাণপুরুষ অভিজিৎ গাঙ্গুলি তাঁর বক্তব্যে জানালেন, সংস্কৃতির প্রাণকেন্দ্র ভারতবর্ষে যোগ্য প্রতিভার কোনো অভাব নেই, অভাব যোগ্য পথপ্রদর্শকের। এই সংস্থা সারা দেশ খুঁজে প্রতিভা অনুসন্ধান করে তাঁদের মধ্যে থেকে বেছে নেবে বিজেতাদের,পাঁচ বছরের চুক্তিতে কাজ দেবে এই নেটউড.টিভি সংস্থা।সংস্থা ইংরাজি ছাড়াও গুজরাটি, তেলেগু, কান্নারা, মারাঠি, মালায়ালাম, তামিল, বাংলা, ভোজপুরি, পাঞ্জাবি, অসমিয়া ও হিন্দিতে স্বল্পদৈর্ঘ্য ছবি তৈরির পরিকল্পনা নিচ্ছে।এছাড়াও নতুন প্রতিভা ও ফ্যাশন দুনিয়ায় ঝড় তুলতে চলেছে এই সংস্থা।

লোগো প্রকাশের এই অনুষ্ঠানে সঞ্চালক মধুমন্তী মৈত্র মঞ্চে ডেকে নেন বিচারকদের, ছিলেন চিত্র পরিবেশক ও প্রদর্শক অরিজিৎ দত্ত, বাদ্যযন্ত্র শিল্পী পন্ডিত বিক্রম ঘোষ, গিটার শিল্পী অমিত দত্ত, অভিনেত্রী সুদীপ্তা চক্রবর্তী ও তনুশ্রী চক্রবর্তীকে। এছাড়াও এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন দিব্যেন্দু ,নীল, চিত্রাঙ্গদা, অনিন্দ্য চ্যাটার্জি, চন্দ্রোদয় পাল, উৎসব, শুভ্রজিত মিত্র, অদিতি রায়, উজ্জয়িনী পরিচালক অনিক দত্ত সহ বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গরা।উৎসব জানান, এই সংস্থার পক্ষে বিভিন্ন বিষয়ে এধরনের মেন্টরদের রাখা হয়েছে নতুন প্রতিভাদের তৈরি করার জন্য।

পশ্চিমবঙ্গ প্রতিভা খোঁজার কাজে একদল মেন্টর থাকবেন, যারা এমন ঝিনুক খুঁজে আনবেন যাতে মুক্তো আছে। আগামীদিনে বাংলাদেশের প্রতিভা অন্বেষণে যাবে এই সংস্থা। কলকাতার অভিযান শুরু হবে নতুন বছরের ভালোবাসার দিন অর্থাৎ ১৪ই ফেব্রুয়ারী ২০২০ থেকে শুরু চলবে ১৩ই ফেব্রুয়ারি ২০২৫। নেট বিনোদনের দর্শকদের জন্য খুশির খবর এই অ্যাপ খুব সহজেই ডাউনলোড করা যাবে এরজন্য কোনো খরচ লাগবে না। কতৃপক্ষর আশা খুব শীঘ্রই জনগণের মনোরঞ্জন করতে সফল হবে। ২০২০ থেকে ২০২৫ সালের মধ্যে সংস্থা ১০টি ইংরাজি ছবি, ২৫টা হিন্দি ছবি ও ২০০টা আঞ্চলিক ভাষায় ছবি তৈরি করবে এবং একই সাথে ৩০টা ইংরাজি স্বল্পদৈর্ঘ্য ছবি, ৬০টি হিন্দি স্বল্পদৈর্ঘ্য ছবি ও ৬৬০টি আঞ্চলিক ভাষায় স্বল্পদৈর্ঘ্য ছবি করবে। এরফলে সবক্ষেত্রে কর্মসংস্থানের সুযোগ বাড়বে। প্রচারে : কানেকশন। ছবি : রাজীব মুখার্জি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *