You cannot copy content of this page

করোনা নিয়ে স্বস্তির খবর রাজপুর সোনারপুরের ৩ নং ওয়ার্ডে, ৭জন করোনামুক্ত জানালেন পৌরমাতা অশোকা

অম্বর ভট্টাচার্য, এবিপিতকমা, সোনারপুর, ১৮ই মে ২০২০ : রাজপুর সোনারপুর পৌরসভা এলাকা বর্তমানে খুব স্পর্ষকাতর অবস্থায় রয়েছে। একের পর এক করোনা আক্রান্ত ও মৃত্যুর খবর সকলের কপালে চিন্তার ভাজ ফেলছে।আমাদের আগের প্রতিবেদনে প্রকাশ করেছিলাম এই পৌর এলাকায় মোট ১৬ জনের করোনা সংক্রমণ হয়েছে কিন্তু যত দিন এগোচ্ছে এই সংখ্যাটা আরও বাড়ছে। সাম্প্রতিক কামালগাজী এলাকায় (২৭ নং ওয়ার্ড) একজন নার্স সংক্রমিত হয়েছে, ৮ নং ওয়ার্ডে একজন সংক্রমিত হয়েছে, ৫ নং ওয়ার্ডে একজন বৃদ্ধা সংক্রমিত হয়ে মেডিকা হাসপাতালে ভর্তি আছে বলে জানা যায়, যদিও এই বৃদ্ধা এই ওয়ার্ডের বাসিন্দা নয়। তিনি কলকাতা কর্পোরেশনের ১১১ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা, লকডাউনের শুরুতে নিজের জামাই-এর বাড়িতে এসেছিলেন, এরপর তিনি ফিরে যান তাঁর নিজের বাড়িতে। কিন্তু জামাই-এর বাড়িতে থাকার সময় তাঁর পা ভেঙে যায় এবং তেমাথায় এক বেসরকারি নার্সিং হোমে প্লাস্টার করা হয়। এরপর প্লাস্টার কাঁটার জন্য তাঁকে মেডিকা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।তখনই তাঁর করোনা পজেটিভ ধরা পড়ে।

কিন্তু এই মাসের প্রথমে রাজপুর সোনারপুরের ৩ নং ওয়ার্ডের শান্তিনগর শিবতলা এলাকার বাসিন্দা ৭২ বছরের সুদেব করের করোনা পজেটিভ দেখা যায়। এরপর তিনি এই সংক্রমণে মারাও যান। কিন্তু বাড়ির আরও ৭ জন সদস্যকে করোনা পরীক্ষার জন্য নিয়ে যাওয়া হয়। সদস্যদের মধ্যে ছিলেন আরতি কর (৫৫), বিপাশা কর (২৫), অনুষা কর (১৫), বিশ্বনাথ কর (২৭), আরাধ্যা কর (০৩), বিজলী দাস (৪০) ও মহুয়া কর (১৭)।এই ওয়ার্ডের পৌরমাতা অশোকা মির্ধার তথ্যে স্বস্তির সংবাদ প্রকাশ পেল। তিনি জানান যে সকল সদস্যদের করোনা পরীক্ষা করা হয়েছে তাদের নেগেটিভ পাওয়া গেছে। ১২ই মে এদের লালারস পরীক্ষার জন্য নেওয়া হয়েছিল কিন্তু সকলের নেগেটিভ হয়েছে বলে জানা যায়। তবে এতে কিন্তু আতঙ্ক যায় নি। সুবেদ করের চায়ের দোকানে কারা চা খেয়েছেন তাই নিয়ে এখন চলছে নজরদারী। সেখান থেকে কিন্তু এই সংক্রমণের সম্ভাবনা থেকেই যাচ্ছে।

Follow us at : www.facebook.com/abptakmaa.newspaper/
www.twitter.com/abptakmaa

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *