You cannot copy content of this page

জেআইএস গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা সর্দার যোধ সিং এর জন্মশতবর্ষে চিফ পোস্ট মাস্টার জেনারেলের বিশেষ স্ট্যাম্প উদ্বোধন

নিজস্ব প্রতিনিধি, এবিপিতকমা, কলকাতা, ২৯শে জানুয়ারি ২০২০ : মানুষের জীবনে কত কী করার থাকে। তবে তার গুরুত্ব অনেকেই বোঝেন না। দেখা গিয়েছে, অনেকে অনেক ছোট জায়গা থেকে নিজেদের চলা শুরু করেন। আর ধীরে ধীরে পরিণত হন পেল্লায় বটগাছের মতো। সকলের কাছে হয়ে ওঠেন একটি উজ্জ্বল উদাহরণ, অনুপ্রেরণার উৎস যেন। অনেকটা এমনই যাত্রাপথ ছিল সর্দার যোধ সিং এর। অনেক ঝড়ঝাপ্টা সামলে নজরে পড়া মতো কিছু করে গিয়েছেন। খুলে দিয়ে গিয়েছেন নতুন দিগন্ত। পরিবারের সদস্যদের নতুন দিশা দেখিয়েছেন। আর সেইসঙ্গে আরও অনেকের জীবনে ছড়িয়ে দিতে পেরেছিলেন আশার আলো। শিক্ষা, উন্নয়নকে একসঙ্গে মিলিয়ে দিয়েছেন দক্ষ হাতে। সেই দূরদৃষ্টিসম্পন্ন মানুষটিকে শ্রদ্ধা জানাতে চলেছে জেআইএস গ্রুপ অফ এডুকেশনাল ইনিশিয়েটিভস। পূর্ব ভারতে এই প্রতিষ্ঠান নিজেদের আলাদা সুনাম বানিয়েছে। সর্দার যোধ সিং এর জন্মশতবর্ষে ১লা ফেব্রুয়ারি সোদপুরের গুরু নানক কলেজ ক্যাম্পাসে তাঁর স্মরণে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। 

এখনকার পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশের মন্টোগোমারি জেলায় এক শিখ পরিবারে ১৯২০ সালে জন্ম সর্দার যোধ সিং এর। ১৯৫২ সালে তিনি কলকাতা চলে আসেন। শুরু করেন নিজের ছোটখাটো ব্যবসা। তবে তাঁর লক্ষ্য ছিল শিক্ষার আলো ছড়িয়ে দেওয়ার। তিনি পরিচিত ছিল বাবুজি নামে। জ্ঞান বিস্তারের প্রথম কাজ আসানসোল থেকে শুরু। সেখানে তৈরি করেন একটি ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ, ১৯৯৮ সালের ঘটনা। এরপর ২০০০ সালে জেআইএস কলেজ অফ ইঞ্জিনিয়ারিং। এরপর ধীরে ধীরে এই প্রতিষ্ঠান নিজেদের ডানা মেলেছে। পূর্ব ভারতে একটা বড়সড় নাম হয়ে উঠেছে। এখন তাদের রয়েছে ২৭টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, ১২৬টি বিষয় নিয়ে লেখাপড়ার সুযোগ। ৩৭,০০০ পড়ুয়া যুক্ত তাঁদের প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে। 

শিক্ষার পাশাপাশি এই জেআইএস গ্রুপ পরিকাঠামো, ডেয়ারি, রিয়েল এস্টেট, পণ্য পরিবহণ, লজিস্টিক, টেলিকম, পরিবহণ, স্টিল, সিনেমা–র মতো বিষয়ে যুক্ত থেকে তৈরি করছে আরও বেশি কর্মসংস্থানের সুযোগ। 

জেআইএস গ্রুপের ম্যানেজিং ডিরেক্টর সর্দার তরণজিৎ সিং বলেন, ‘আমার বাবার দূরদৃষ্টি ছিল। সেইসঙ্গে তিনি ছিলেন নিজের কাজের প্রতি নিবেদিত প্রাণ, সৎ। তাঁর লক্ষ্য ছিল উন্নত মানের শিক্ষার সুযোগ করে দেওয়া, মানুষকে কর্মসংস্থানের সুযোগ  করে দেওয়া। তাই তিনি যে চারাগাছ পুঁতেছিলেন, সেটা এখন ডালপালা মেলেছে। শিক্ষার হাত ধরে পূর্ব ভারতের কতই না পরিবারের সঙ্গে আমাদের সম্পর্ক তৈরি হয়েছে। তৈরি হয়েছে কাজের সুযোগ। তাঁর মতো নেতা ছিল বলেই এই প্রতিষ্ঠান এত দূর এগিয়েছে। জেআইএস পরিবারের কাছে তিনি সবসময় অণুপ্রেরণা, আদর্শ। জেআইএস পরিবার তাঁর জন্মশতবর্ষে শ্রদ্ধা জানাতে বিশেষ স্ট্যাম্প প্রকাশ করার উদ্যোগ নিয়েছে। ওয়েস্ট বেঙ্গল সার্কেলের চিফ পোস্ট মাস্টার জেনারেল তার উদ্বোধন করবেন। একই সঙ্গে ওইদিন গুরু নানক ডেন্টাল সায়েন্স অ্যান্ড রিসার্চে সর্দার যোধ সিং মেমোরিয়াল ব্লকেরও উদ্বোধন করা হবে।’

সর্দার যোধ সিং এর স্বপ্ন ছিল সকলের জন্য শিক্ষার প্রসার ঘটানো, সকলকে শিক্ষার সুযোগ করে দেওয়া। তিনি মনে করতেন একমাত্র শিক্ষাই দেশ এবং জাতি কে সামনে অগ্রসর হতে সাহায্য করে। তার এই স্বপ্ন কে বাস্তবায়িত করবার লক্ষ্যে জেআইএস গোষ্ঠী ব্রতী।

ভবিষ্যতেও তারা বাবুজীর এই “এডুকেশন ফর অল”  চিন্তা ভাবনা কে মাথায় রেখে সারা ভারতে আরও বেশি করে শিক্ষার প্রসার ঘটাতে চান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *