You cannot copy content of this page

রাজ্যে এপ্রিল থেকে আট দফায় বিধানসভা ভোট, জেনে নিন কবে কোথায়

অম্বর ভট্টাচার্য, এবিপিতকমা, কলকাতা, ২৬শে ফেব্রুয়ারি ২০২১ : পশ্চিমবাংলা সহ আরও চার রাজ্যের ভোটের দিনক্ষণ ঘোষণা করল নির্বাচন কমিশন। আজ নয়াদিল্লির বিজ্ঞান ভবনে এক সাংবাদিক বৈঠকে কমিশন জানিয়ে দিল, অসম, কেরল, তামিলনাড়ু ও পুদুচেরিতে মার্চ ও এপ্রিল মাসেই নির্বাচন হবে।

এদিন কমিশন জানিয়েছে, অসমে ৩ দফায় ভোট হবে। প্রথম দফায় ২৭ মার্চ ৪৭টি আসনে ভোট হবে।দ্বিতীয় দফায় ১ এপ্রিল ভোট হবে। তৃতীয় দফার ভোট হবে ৬ এপ্রিল। কেরলে ৬ এপ্রিল মাত্র একটি দফায় ভোট হবে। তামিলনাড়ুতেও ৬ এপ্রিল একটি মাত্র দফায় ভোট হবে। পুদুচেরিতে ৬ এপ্রিল এক দফায় নির্বাচন হবে। পশ্চিমবঙ্গে অবশ্য ভোট হবে ৮ দফায়।

দেশের পাঁচ রাজ্যে মোট ৮২৪টি বিধানসভা আসনে ভোট হবে। মোট ভোটার সংখ্যা ১৮ কোটি ৬৮ লক্ষ। ২ লক্ষ ৭০ হাজার পোলিং স্টেশনে ভোট দেওয়া যাবে। নির্বাচন কমিশন জানিয়েছে, অসমের বর্তমান সরকারের মেয়াদ রয়েছে ৩১ মে পর্যন্ত। সেখানে মোট আসন সংখ্যা ১২৬টি। করোনা আবহে ওই রাজ্যে বুথ সংখ্যা বাড়িয়ে তোলা হয়েছে।মহামারীর জন্য একটি পোলিং স্টেশনে সর্বোচ্চ ১ হাজার জন ভোটার থাকবেন। পর্যাপ্ত ভোটকর্মী ও বাহিনী মোতায়েন করা যাবে বলে মত কমিশনের। এদিকে, মোট ২৯৪টি বিধানসভা আসনের পশ্চিমবঙ্গেও বুথের সংখ্যা ৩১ শতাংশ বাড়িয়ে ১ লক্ষ ১ হাজার ৯১৬ করা হয়েছে। সেখানে বর্তমান সরকারের মেয়াদ হচ্ছে ৩০ মে পর্যন্ত। চিফ ইলেকশন কমিশনার সুনীল অরোরা জানিয়েছেন, তামিলনাড়ুতে মোট ২৩৪টি আসনে ভোট হবে। ওই রাজ্যে বর্তমান সরকারের মেয়াদ ৩০ মে পর্যন্ত। কেরলে ১৪০টি আসনে হবে নির্বাচন। সেখানে বর্তমান সরকারের মেয়াদ ১ জুন পর্যন্ত। পুদুচেরিতে ৩০টি আসনে ভোট হবে।

বিহার মডেলে জোর দিয়ে এদিন চিফ ইলেকশন কমিশনার সুনীল অরোরা বলেন, “করোনা পরবর্তী পরিস্থিতিতে ২০২১ সালে নতুন আশার আলো দেখতে পেয়েছে দেশ। করোনাযোদ্ধাদের আমি সম্মান জানাই। গত বছর করোনার মধ্যেই একাধিক নির্বাচন হয়েছে। ভোটারদের স্বাস্থ্যরক্ষায় আমরা গুরুত্ব দিচ্ছি, এহেন সংকট কালেও আমরা নির্বাচন অনুষ্ঠিত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।” তিনি আরও বলেন, “৮০ বছরের বেশি বয়সের ভোটারদের জন্য পোস্টাল ব্যালটের ব্যবস্থা রয়েছে। ভোটদানের সময় একঘন্টা বাড়িয়ে তোলা হয়েছে। করোনা কালে রাজনৈতিক দলগুলি রোড শো করতে পারবে। বাড়ি বাড়ি গিয়ে প্রচারে সর্বোচ্চ পাঁচজন থাকবে। মনোনয়ন জমা দেওয়ার সময় প্রার্থীর সঙ্গে ২ জনের বেশি সঙ্গী থাকতে পারবে না। নির্বাচনের দিনক্ষণ ঘোষণার সঙ্গেই কার্যকর হয়ে গিয়েছে নির্বাচনী বিধি। একজন প্রার্থী সর্বোচ্চ ৩০.৪০ লাখ টাকা খরচ করতে পারেন।

জেনে নিন বাংলার নির্বাচনী নির্ঘন্ট:

বাংলায় ২৯৪, অসমে ১২৬, কেরলে ১৪০ (৩০টি আসন), তামিলনাড়ুতে ২৩৪ ভোট হবে।

বাংলায় নির্বাচন হবে ৮ দফায়।

প্রথম দফাঃ ২৭শে মার্চ – ৩০টি কেন্দ্র (পুরুলিয়া, বাঁকুড়া, ঝাড়গ্রাম, পশ্চিম মেদিনীপুর ভাগ ১, পূর্ব মেদিনীপুর ভাগ ১)

দ্বিতীয় দফাঃ ১লা এপ্রিল – ৩০টি কেন্দ্র (বাঁকুড়া ভাগ ২, পশ্চিম মেদিনীপুর ভাগ ২, পূর্ব মেদিনীপুর ভাগ ২, দক্ষিণ ২৪ পরগনা ভাগ ১)

তৃতীয় দফাঃ ৬ই এপ্রিল – ৩১টি কেন্দ্র (হাওড়া ভাগ ১, হুগলী ভাগ ১, দক্ষিণ ২৪ পরগনা ভাগ ২)

চতুর্থ দফাঃ ১০ই এপ্রিল – ৪৪টি কেন্দ্র (হাওড়া ভাগ ২, হুগলী ভাগ ২, দক্ষিণ ২৪ পরগনা ভাগ ৩, আলিপুরদুয়ার, কোচবিহার)

পঞ্চম দফাঃ ১৭ই এপ্রিল – ৪৫টি কেন্দ্র (উত্তর ২৪ পরগনা ভাগ ১, নদীয়া ভাগ ১, পূর্ব বর্ধমান ভাগ ১, দার্জিলিং, কালিম্পঙ, জলপাইগুড়ি)

ষষ্ঠ দফাঃ ২২শে এপ্রিল – ৪৩ কেন্দ্র (উত্তর ২৪ পরগনা ভাগ ২, নদীয়া ভাগ ১, পূর্ব বর্ধমান ভাগ ২, উত্তর দিনাজপুর)

সপ্তম দফাঃ ২৬শে এপ্রিল – ৩৬টি কেন্দ্র (মালদা ভাগ ১, মুর্শিদাবাদ ভাগ ১, পশ্চিম বর্ধমান, দক্ষিণ কলকাতা, দক্ষিণ দিনাজপুর)

অষ্টম দফাঃ ২৯শে এপ্রিল – ৩৫টি কেন্দ্র (মালদা ভাগ ২, মুর্শিদাবাদ ভাগ ২, বীরভূম, উত্তর কলকাতা)

ভোটগণনা হবে ২রা মে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *