You cannot copy content of this page

এবার জেলে বসে সারদা কর্তা সুদীপ্ত বিস্ফোরক তথ্য অধীর, সুজন, বিমান, শুভেন্দু ও মুকুলের বিরুদ্ধে লিখিত দিয়ে সুবিচারের আবেদন প্রধানমন্ত্রী ও মুখ্যমন্ত্রীকে

অম্বর ভট্টাচার্য, এবিপিতকমা, কলকাতা, ৫ই ডিসেম্বর ২০২০ : সারদা কান্ড নিয়ে বেশ অনেকদিন বাজারে কোন আলোচনা ছিল না। মাঝে শুধু একবার সিবিআই-এর চিঠি ছাড়া সেভাবে কিছুই শোনা যাচ্ছিল না। কিন্তু হঠাৎ শুভেন্দু অধিকারি-র দল ছাড়ার খবর প্রকাশ হতেই আবার ঝুলি থেকে বেড়াল বাইরে এলো। জেলে বসে এবার সারদাকর্তা সুদীপ্ত সেন বিস্ফোরক তথ্য লিখিত আকারে প্রকাশ করে চিঠি দিল প্রধানমন্ত্রী ও রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জিকে।

চিঠিতে তিনি সাফ উল্লেখ করলেন শাসক ও বিরধী দলের বেশ কয়েকজন হেভিওয়েট নেতার নাম।এই নাম প্রকাশ্য আসায় বিধানসভা নির্বাচনের আগে ফের বাজার গরম হয়ে উঠল। সুদীপ্ত সেন পরিস্কার তাঁর চিঠিতে লিখেছেন কারা তাঁর থেকে কোটি কোটি টাকা নিয়েছেন। সেই তালিকার মধ্যে রয়েছে প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর রঞ্জন চৌধুরী (৬ কোটি), সুজন চক্রবর্তী (৯ কোটি), সুভেন্দু অধিকারি (৬ কোটি), বিমান বোস (২ কোটি) ও মুকুল রায় (অঙ্ক মনে নেই, তবে প্রচুর টাকা নিয়েছেন)। এই নাম দিয়ে সারদা কর্তা প্রধানমন্ত্রী ও মুখ্যমন্ত্রীর কাছে সুবিচারের আবেদন জানিয়ে লিখেছেন সিবিআই ও রাজ্য পুলিশের সাহায্যে যাতে এই প্রভাবশালী নেতাদের বিরুদ্ধে আইনত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়। এর সাথে তিনি এমনও লিখেছেন এই নেতাদের বাদেও অনেক সিপিএম, বিজেপি,কংগ্রেস ও তৃনমূল নেতারা তাঁর থেকে অনেক টাকা আত্মস্বাদ করেছেন।

সুদীপ্ত সেন চিঠিতে জানান, এর আগেও তিনি সিবিআই-কে অনেকবার তদন্তের খাতিরে জিজ্ঞাসাবাদের সময় এই নেতাদের নাম বলেছেন কিন্তু কোন ব্যবস্থা নেওয়া হয় নি। তিনি এমন লেখেন যে এটা খুবই দুঃখজনক যে গরীব মানুষের কষ্টার্জিত সঞ্চিত আয়ের টাকা এভাবে আত্মস্বাদ করার পর তারা আজ বিজেপি-র উচ্চ নেতৃত্ব হিসাবে মান্যতা পাচ্ছে।এই চিঠির পর রাজ্য রাজনীতিতে আবার বেশ উত্তেজনা শুরু হয়েছে। বিধানসভার আগে এই চিঠি ফের বিরোধীদের ব্যাকফুটে ফেলে দিয়ে তৃনমূলকে অক্সিজেন যোগালো। এর আগে লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি সারদা ও নারদা কান্ডের অর্থিক কেলেঙ্কারির সাথে যুক্ত তৃনমূল নেতাদের ভিডিও ও ছবি মানুষের সামনে তুলে ধরে সুবিধা নিয়েছে। এবার সেটাই আবার তাদের দিকে বুমেরাং হয়ে ধেয়ে এলো। কি বলবে বঙ্গ রাজনীতির বিরোধী নেতারা? এখন সেটাই দেখার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *