You cannot copy content of this page

লাদাখে গোলওয়ানে চীনা সেনাদের বর্বোরচিত আক্রমণে ২০ জন ভারতীয় বীর জওয়ানের মৃত্যুতে শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করল গড়িয়া নবগ্রামের বাসিন্দাদের সাথে পাপাই দত্ত

অম্বর ভট্টাচার্য, এবিপিতকমা, সোনারপুর, ২৭শে জুন ২০২০ : যখন সরকার ও মানুষ সকলেই করোনা নিয়ে ব্যস্ত, মানুষ লোকডাউন কিভাবে মোকাবিলা করবে তাই নিয়ে ব্যস্ত ঠিক এমন সময় করোনার যেখান থেকে উৎপত্তি সেই চীনের লাল সেনারা ঝাপিয়ে পড়ল আমাদের ভারতীয় সেনাদের উপর শুধুমাত্র অন্যায়ভাবে জমি দখলের জন্য।দুই দেশের সেনাদের মধ্যে হয় মুষ্ঠিযুদ্ধ যেখানে ২০ জন ভারতীয় সেনা বলিদান হয় আর চীনের ৪৫জন সেনাদের ঘাড় মোটকে ও পাঁজর ভেঙে মারে ভারতীয় সেনারা। যারা এভাবে নিজের মাতৃভুমিকে রক্ষা করতে ব্রতী তাঁদের আত্মবলিদানকে স্মরণ করতেই হয়।সব থেকে উল্লেখ্য লকডাউনের সময় অনলাইন ক্লাস চললেও কচিকাঁচাদের মধ্যে এই মর্মান্তিক ঘৃণ্য পাশবিক ঘটনা দাগ কেটে যায়।

আজ সন্ধ্যায় গড়িয়া নবগ্রাম ঝিল রোডে থার্ড লেনের অধিবাসীবৃন্দের উদ্যোগে সেই ২০ জন বীর সেনার আত্মার শান্তি কামনা করে মোমবাতি জ্বালানো হয়। এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রাজপুর সোনারপুর পৌরসভার প্রাক্তন সি আই সি ও বর্তমানে প্রশাসকমন্ডলীর সদস্য বিভাস মুখার্জি, সোনারপুর উত্তর বিধানসভার তৃণমূল যুব কংগ্রেসের সভাপতি পাপাই দত্ত, গড়িয়া টাউন জয়হিন্দ বাহিনীর সভাপতি অরিন্দম দত্ত, নরেন্দ্রপুর থানার ডি আই বি পুলিশকর্মী সহ অনেকে। উপস্থিত ছিলেন গড়িয়া নবগ্রামের বহু গৃহবধূ, শিশু ও পুরুষ বাসিন্দারা। সকলে মোমবাতি প্রজ্বলনের মধ্যে দিয়ে শহীদ সেনাদের প্রতি শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করেন।

এরপর এক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে সঙ্গীত পরিবেশন করেন এলাকার মহিলারা এবং আবৃত্তি পরিবেশন করেন আহীর ভট্টাচার্য। কিন্তু অনুষ্ঠানে বিঘ্ন ঘটায় অবিরাম বৃষ্টি। যদিও সকলে অপেক্ষা করে যদি বৃষ্টি কমে যায় কিন্তু দীর্ঘক্ষন বৃষ্টি চলায় বাধ্য হয়ে বন্ধ করে দিতে হয় অনুষ্ঠান। স্থানীয় বিধায়ক ফিরদৌসী বেগম ও প্রাক্তন সি আই সি তথা প্রশাসকমন্ডলীর অন্যতম সদস্য নজরুল আলি মন্ডল তাঁদের ব্যস্ততার মধ্যেও উপস্থিত থাকার ইচ্ছে প্রকাশ করলেও বাধ সাধে বৃষ্টি। বিশেষ মিটিং ও সাথে বৃষ্টির কারণে উপস্থিত হতে পারেন নি সুকান্ত মন্ডল যা তিনি ব্যক্তিগত বার্তা দিয়ে জানিয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *