You cannot copy content of this page

সুবিধাজনক কেনাকাটার স্বার্থে কেভেন্টার লঞ্চ করল খাদ্য ও পানীয় বিক্রির অনলাইন প্ল্যাটফর্ম Keventer eStore অ্যাপ

নিজস্ব সংবাদদাতা, এবিপিতকমা, কলকাতা, ১৮ই ডিসেম্বর ২০২০ : স্বাস্থ্য ও পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতার উপর বেশি নিয়ন্ত্রণ রাখার জন্য তৈরি হল নিজস্ব ডেলিভারি নেটওয়ার্ক আপনার পুষ্টির দৈনিক ডোজ হাতের মুঠোয় রাখুন আর ডেলিভারি পান ঘরে বসেই । কোভিড-১৯ সাধারণ মানুষের জীবনযাত্রার ধরন বদলে দিয়েছে আর এই বদল সম্ভব হয়েছে অত্যাবশ্যকীয় পরিষেবায় যুক্ত কর্মীরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজ করায়। দুধ আর খাবার দাবার সরবরাহ করার কর্মীবাহিনী এঁদের একটা বড় অংশ। মানুষ যে নিরাপদে ঘরে থাকতে পেরেছেন, তার পিছনে এঁদের অনেক অবদান। ডেয়ারিজাত দ্রব্য আর খাবার দাবার সহজে এবং সুবিধাজনকভাবে ক্রেতাদের কাছে পৌঁছে দেওয়ার এই প্রয়াস বজায় রাখতে পূর্ব ভারতে সবচেয়ে দ্রুত গতিতে বেড়ে চলা খাদ্য ও পানীয় কোম্পানিগুলোর অন্যতম, কেভেন্টার অ্যাগ্রো, আজ খাদ্য ও পানীয় বিক্রির অনলাইন প্ল্যাটফর্ম লঞ্চ করল, যার নাম Keventer eStore অ্যাপ।

Keventer eStore লঞ্চ হয়ে যাওয়ায় এখন ক্রেতারা ঘরে বসেই কেভেন্টারের পুষ্টিকর প্রোডাক্টের বিস্তৃত সম্ভারের মধ্যে থেকে যে কোন জিনিসের অর্ডার নিরাপদে নিজের ঘরে বসেই দিতে পারবেন এবং একটা বাটনের কয়েকটা ক্লিকেই সেটার হোম ডেলিভারি পেয়ে যাবেন। ইউ এইচ টি মিল্ক, পানীয়, আইসক্রিম, প্যাক করা পানীয় জল, ফ্রুট স্ন্যাক্স, ফ্রোজেন খাবার দাবারের মত একগুচ্ছ প্রোডাক্ট কেনার সুবিধাজনক অভিজ্ঞতা ক্রেতারা এই অ্যাপের মাধ্যমে পাবেন।

যেহেতু পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা আর স্বাস্থ্য এখন ক্রেতাদের প্রধান চিন্তার বিষয়, সেহেতু প্রোডাক্ট ডেলিভারি করার সময় ঐ দুটো জিনিসের উপর বেশি নিয়ন্ত্রণ পাওয়ার জন্য কেভেন্টার অ্যাগ্রো নিজেদের কারখানাগুলোতে পরিচ্ছন্নতার উঁচু মান রক্ষা করছে। এর পাশাপাশি নিজস্ব ডেলিভারি নেটওয়ার্ক তৈরি করার জন্য সারা কলকাতায় অনেক লোক নিযুক্ত করেছে।

Keventer eStore লঞ্চ করা সম্বন্ধে শ্রী মায়াঙ্ক জালান, চেয়ারম্যান ও ম্যানেজিং ডিরেক্টর, কেভেন্টার অ্যাগ্রো লিমিটেড, মন্তব্য করলেন “লকডাউনের শুরু থেকেই কলকাতার নাগরিকরা যাতে তাঁদের রোজকার পুষ্টির প্রয়োজন মেটাতে ডেয়ারিজাত দ্রব্য আর খাবার দাবার সহজে কিনতে পারেন, তা নিশ্চিত করতে কেভেন্টার অ্যাগ্রো ব্যবস্থা নিচ্ছে। নাগরিকদের সাহায্য করার জন্য আমাদের ওয়েবসাইটে স্টোর লোকেটরের ব্যবস্থা করেছি, যাতে তাঁরা দুধ আর কলার দৈনন্দিন জোগান পেয়ে যান। তাছাড়া সুইগি গ্রোসারি আর জোম্যাটো মার্কেটের মত প্ল্যাটফর্মগুলোর সাথেও জোট বেঁধেছি, যাতে কলকাতাবাসীকে স্বাস্থ্যকর পুষ্টি দেওয়া যায়। আমরা জোর দিয়েছি ডিজিটাল উপায়ে ডেয়ারিজাত দ্রব্য ও খাবার দাবার ক্রেতাদের কাছে পৌঁছে দেওয়ার দিকে, যাতে তাঁদের ঘর থেকে বেরোতে না হয়। Keventer eStore লঞ্চ করার মধ্যে দিয়ে আমাদের ডিজিটাল রূপান্তর সম্পূর্ণ হল। কেভেন্টারের সব পুষ্টিকর প্রোডাক্ট একটা অ্যাপের মধ্যে নিয়ে এসে আমরা কলকাতার মানুষকে রোজকার পুষ্টির প্রয়োজন মেটানোর জন্য কেনাকাটা করার একটা নির্ঝঞ্ঝাট ও সহজ পথ দেখাতে চাইছি।”

Keventer eStore অ্যাপ গুগল প্লে স্টোর আর আইওএস অ্যাপ স্টোর, দু জায়গাতেই পাওয়া যাচ্ছে। পছন্দের প্রোডাক্টের অর্ডার দেওয়ার জন্য https://shop.keventer.com/ ওয়েবসাইটেও আসতে পারেন। প্রচারে : পার্ফেক্ট রিলেশনস।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *