You cannot copy content of this page

“সুস্বাস্থ্যকর খান সুস্বাস্থ্যে থাকুন” জানালেন সুন্দরী আকাংশা মংলানি

অম্বর ভট্টাচার্য, এবিপিতকমা, কলকাতা, ২৮শে জুন ২০১৯ : সংযম রেখে খাওয়াদাওয়া করা আমাদের প্রত্যেকের শরীর স্বাস্থের জন্য অত্যন্ত প্রয়োজনীয়। সাধারণত মানুষের ধারণা হল যে সংযম মেনে খাওয়াদাওয়া করা শুধুই আমাদের শরীরকে সুগঠিত রাখার জন্য প্রয়োজন। কিন্তু এই ধারণা একেবারেই ভুল। কারণ, আমাদের শরীরকে সুগঠিত রাখার পাশাপাশি, খাদ্য সংযম আমাদেরকে বহু রোগ যেমন বাত, উচ্চরক্তচাপ, হাঁপানি, গলব্লাডার স্টোন, ইত্যাদি থেকে দূরে রাখতে এবং সুস্থ জীবনযাপন করতে সাহায্য করে। আর সেই বিষয়েই আলোচনা করতে আই.আই.এইচ.এমে পৌঁছলেন গত বছরের মিসেস ইন্ডিয়া ওয়ারলডওয়াইড ইস্ট, আকাংশা মংলানি। সেখানে গিয়ে ছাত্রছাত্রীদের তৈরি খাওয়ার চেখে মন্তব্যও করলেন তিনি।

আকাংশা মংলানি বলেন, “আমার পেশার কারণে আমাকে কঠোর ভাবে খাদ্যসংযম মেনে চলতে হয়। এতদিন ধরে নানান রকম সুস্বাস্থকর খাওয়ারের উপর নির্ভর করছি, কিন্তু কোনোদিন বুঝতেই পারিনি যে সুস্বাস্থ্যকর খাওয়ারও এত সুস্বাদু হতে পারে। এখানকার ছাত্রছাত্রীরা আমার এতদিনের ধারণা বদলে দিয়েছে। এই ধরণের খাওয়ার যদি এত সুস্বাদু হয় তাহলে মনে হয় সবাই খুব সহজেই খাদ্যসংজম মেনে চলতে পারবেন। এইধরনের খাওয়াদাওয়ার আমাদের সবারই প্রয়োজন। আজকের দিনে আমরা সকলে এতই ব্যস্ত যে শরীরচর্চা করার সময় পাইনা। সে ক্ষেত্রে খাওয়াদাওয়া নিয়মের মধ্যে রেখে করা শরীর সুস্থ রাখতে অনেকটাই সাহায্য করে”।

এদিন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন আই.আই.এইচ.এমের পরিচালিকা শ্রীমতী সংযুক্তা বোস। আকাংশা মংলানির পাশাপাশি তিনি নিজেও প্রশংসা করলেন তাঁর ছাত্রছাত্রীদের এবং তাদের অধ্যাপকদের। এই খাদ্যপ্রদর্শনীর তালিকায় ছাত্রছাত্রীদের ঝুলিতে ছিল এসরটেড প্স্রাউট, ভিন্ন স্বাদের স্যালাদ, ওটসের পোলাও, চিকেন সালামি, চিকেন গ্যালেন্তাইন, গ্রিলড ফিশ, ব্রাউন নুডলসের মতন বেশ কিছু সুস্বাদু খাওয়ার। আর শেষ পাতে মিষ্টিমুখ করাতে ছিল লিচি শ্রিখান্দ, গ্রনলা বার, ফল এবং আরও অনেক কিছু যা একেবারেই ওজন বাড়ায়ে না। প্রচারে : ক্যানডিড কমিউনিকেশন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *