প্রথম পাতা

গড়িয়া ঢালুয়া একতা ক্লাবের উদ্যোগে রটন্তী কালি পূজায় সমাজসেবার অঙ্গিকার নিয়ে রক্তদান থেকে বস্ত্র বিতরণ ও পড়াশুনো উপকরণ উপহারে বিধায়ক ফিরদৌসী থেকে সাংসদ

অম্বর ভট্টাচার্য, এবিপিতকমা, সোনারপুর, ৪ঠা ফেব্রুয়ারি ২০১৯ ঃ  গড়িয়া স্টেশন এলাকায় রাজপুর সোনারপুর পৌরসভার ২ নং ওয়ার্ড অন্তর্গত ঢালুয়া একতা ক্লাবের রটন্তী কালি পূজার শুরু কেউ না বলতে পারলেও এই পূজা যে বহু বছরের প্রাচীন তা জানালো ক্লাবের সম্পাদক সুকান্ত মন্ডল। তিনি জানান, আমি কেন আমার বাবাও বলতে পারবে না এই পূজা কবে শুরু হয়েছে বা এলাকায় তার থেকেও যদি কেউ প্রবীণ থাকেন তারাও জানেন না। তবে এই পূজা বহু প্রাচীন তা বলতে পারি এবং খুবই জাগ্রত। শুধু জেলা নয় রাজ্যের বিভিন্ন জায়গা থেকে মানুষ আসে এই পুজোয় সামিল হতে। আমরা এই পুজো আমাবস্যায় করি না, আমরা চতুর্থী তিথিতে করি। সাধারণত রাতেই হয় এই পুজো, প্রায় ২০০ জন পুরুষ ও মহিলা মন্দির সংলগ্ন পুকুরে স্নান করে দন্ডি কাটেন নিজেদের মনস্কামনা পূরনের উদ্দেশ্যে।ভাবতে পারছেন এই শীতের রাতে মানুষ স্নান করে পুকুরে এবং দন্ডি কাটে! সত্যিই এই পুজো আজ আর পুজো নেই বর্তমানে তা উৎসবে রূপান্তরিত হয়েছে। গত কয়েক বছর ধরে এই ক্লাবের উদ্যোগে পুজোর সাথে সমাজসেবামূলক কর্মসূচীও নেওয়া হচ্ছে। গত বছর রক্তদানের সাথে মরণোত্তর চক্ষুদানের অঙ্গিকার করা হয়েছিল, এবছর ঠিক একই ভাবে অঙ্গদানের জন্য চিন্তাভাবনা করা হলেও কিছু ত্রুটির কারণে করা যায় নি। আগামী বছর তারা এই ভাবনা সম্পন্ন করবে বলে জানায় ক্লাব সভাপতি সুব্রত মন্ডল। এবছর স্থানীয় কিছু মানুষের অকাল প্রয়াণের স্মৃতিতে যেমন করা হয়েছিল রক্তদান তেমনই সেই অকাল প্রয়াণ প্রিয় মানুষজনের উদ্দেশ্যে গরীব ও পিছিয়ে পড়া মানুষদের কম্বল ও শাড়ী দান করা হয়। এছাড়া ছোটছোট ছাত্রছাত্রীদের পড়াশুনোর উপকরণ উপহার হিসেবে তুলে দেওয়া হয় ক্লাবের পক্ষ থেকে। এব্যাপারে ক্লাব সভাপতি সুব্রত মন্ডল বলেন, এবছর প্রায় ২০০ জন মানুষকে কম্বল প্রদান করা হচ্ছে এবং ১৫০ জন মহিলাকে শাড়ী প্রদান করা হচ্ছে। এছাড়া এই এলাকা খুব পিছিয়ে পড়া মানুষের বাস বলে প্রায় ২০০ জন ছাত্রছাত্রীদের শিক্ষার প্রসারের জন্য লেখাপড়ার উপকরণ উপহার হিসেবে তুলে দেওয়া হবে।এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়েছিলেন রাজ্যসভার সাংসদ তথা দক্ষিণ ২৪ পরগণা জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি শুভাশিস চক্রবর্তী, স্থানীয় বিধায়ক ফিরদৌসী বেগম, এই ওয়ার্ডের পুরপিতা অমরেশ সরদার, ৪ নং ওয়ার্ডের পুরপিতা তথা সি আই সি এবং গড়িয়া টাউন তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি বিভাস মুখার্জি, গড়িয়া টাউন যুব তৃণমূল সভাপতি জয়ন্ত সেনগুপ্ত, শ্রমিক সংগঠনের আহ্বায়ক পিন্টু দেবনাথ সহ অনেকে। সাংসদ শুভাশিস চক্রবর্তী ও বিধায়ক ফিরদৌসী বেগম রক্তদাতাদের উৎসাহ প্রদাণের জন্য দেখা করেন এবং দুঃস্থদের হাতে তাদের কম্বল ও শাড়ী তুলে দেন। এবছর প্রায় ১০০ জন পুরুষ ও মহিলা রক্তদান করেন। উল্লেক্ষ এবছর মহিলাদের সংখ্যা উল্লেখজনক ভাবে অনেক বেশি, প্রায় ৫০ শতাংশের উপর।প্রয়াত প্রতাপ মন্ডল ও প্রয়াত পরিতোষ মন্ডলের স্মরণে হয় রক্তদান শিবির, প্রয়াত মৃণালকান্তি চ্যাটার্জির স্মৃতির উদ্দেশ্যে পুত্র চঞ্চল চ্যাটার্জির পরিচালনায় হয় কম্বল বিতরণ ও প্রয়াত মানিকচাঁদ মন্ডলের সৃতির উদ্দেশ্য শাড়ী বিতরণ এবং প্রয়াত কালিপদ ঘোরুই-এর স্মৃতির উদ্দেশ্যে শিশুদের শিক্ষার উপকরণ উপহার দেওয়া হয়।

 

   

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *