You cannot copy content of this page

ভাত কিন্তু জীবনের ভিলেন হয়ে উঠতে পারে, ভাত খাওয়ার পরে এই কাজগুলো করলে মৃত্যু নিশ্চিত !! খুব সাবধান

অম্বর ভট্টাচার্য, এবিপিতকমা, কলকাতা, ৩১শে অক্টোবর ২০১৯ : ভাত বাঙ্গালিদের প্রধান খাদ্য। তাই এক অর্থ বলা যায়, বাঙালির ভাত ছাড়া যেন বেঁচে থাকাই দায়।তাই সবার কাছেই সব চেয়ে প্রিয় ও আরামদায়ক খাবার হচ্ছে ভাত। আপনি যদি স্বাস্থ্য সচেতন থাকেন তবে এই ভাতই আপনার কাছে ভিলেন হয়ে উঠবে। অনেকেই জানেন না যে, ভাত খাওয়ার আগে কি করবেন ? ভাত খাওয়ার পরে কি করবেন? কতটুকু ভাত খাওয়া স্বাস্থ্যের জন্য ভালো ? ভাতের মধ্যে কি কি উপাদান বিদ্যমান তা একবার জেনে নিন। ১০০ গ্রাম পরিমাণ ভাতে থাকে ৩৫৭ কিলোক্যালরি প্রোটিন, ৮ গ্রাম পরিমাণ ফ্যাট, ০.৫ গ্রাম কার্বো হাইড্রেড, ৭৮ গ্রাম ফাইবার, ২.৮ গ্রাম সলিউল ফাইবার সহ ইনসলিউবল ফাইভার। আপনি যদি নিরামিষ বিরোধী হন তবে আপনাকে সবজি , ডাল ও দই খেতে হবে কারন ভাতের মধ্যে অনেক স্টার্স থাকে, যা শরীরের গ্লুকোজ ভেঙে দেয় এবং রক্তে ইন্সুলিনের পরিমাণ বেড়ে যায়। তাই ডায়াবেটিস রোগীদের অবশ্যই ফাইবার খেতে হবে। আমরা সবাই জানি, ভাত উপকারী খাবার। সারা দিনে বাঙ্গালি একবারও ভাত খাবে না সেটা হতে পারে না। অনেকেই আছেন, যারা দিনে ৪ বারও ভাত খেয়ে থাকেন। এতে কিন্তু তেমন কোনো ক্ষতি নাই। তবে পেট ভরে ভাত খাওয়ার অভ্যাস বাদ দিতে হবে। আপনি কি জানেন, কোন চালের ভাত বেশি উপকারী? লাল চালের ভাত অনেক উপকারী কারণ এ ভাতে অনেক বেশি পুষ্টি উপাদান থাকে।

ভাত খাওয়ার পর এই ৭টি কাজ পরিত্যাগ করুন, কাজগুলো কি কি জেনে নিন: ১) ধুমপান করবেন না । করছেন তো মরছেন । আপনি সারাদিনে অনেকগুলো সিগারেট খেলেও যতটুকু না ক্ষতি করবে, তার চাইতে অনেক বেশী ক্ষতি করবে যদি ভাত খাবার পর একটা খান । ভাত খাবার পর একটা সিগারেট খাওয়া আর সার্বিকভাবে দশটা সিগারেট খাওয়া ক্ষতির দিক দিয়ে সমান অর্থ বহন করে। যারা নিয়মিত সিগারেট খান তারা জানেন ভাত খাবার পর তাৎক্ষনিকভাবে সিগারেট খেলে কি ধরনের ফিলিংস আসে । যত বেশী ফিলিংস তত বেশী ক্ষতি । ২) খাবার শেষ করার পর পরই তাৎক্ষণিক ভাবে কোন ফল খাবেন না । গ্যাস ফর্ম করতে পারে । খাবার খাওয়ার এক থেকে দুই ঘন্টা পর , কিংবা এক ঘন্টা আগে ফল খাবেন । ৩) চা খাবেন না । চায়ের মধ্যে প্রচুর পরিমানে টেনিক এসিড থাকে যা খাদ্যের প্রোটিনের পরিমাণকে ১০০ গুণ বাড়িয়ে তুলে যার ফলে খাবার হজম হতে স্বাভাবিকের চেয়ে অনেক বেশী সময় লাগে । ৪) বেল্ট কিংবা প্যান্টের কোমর লুস করবেন না । খাবার পরপরই বেল্ট কিংবা প্যান্টের কোমর লুস করলে অতি সহজেই ইন্টেসটাইন(পাকস্থলি থেকে মলদ্বার পর্যন্ত খাদ্যনালীর নিম্নাংশ ) বেকে যেতে পারে, পেঁচিয়ে যেতে পারে অথবা ব্লকও হয়ে যেতে পারে ।যাকে বলেইন্টেস্টাইনাল অবস্ট্রাকশন ৫) স্নান করবেন না ! ভাত খাবার পরপরই স্নান করলে শরীরের রক্ত সঞ্চালন মাত্রা বেড়ে যায় ! ফলে পাকস্থলির চারপাশের রক্তের পরিমাণ কমে যেতে পারে যা শরীরের পরিপাক তন্ত্রকে দুর্বল করে ফেলবে , ফলে খাদ্য হজম হতে সময় স্বাভাবিকের চেয়ে বেশী লাগবে । ৬) ঘুমোতে যাবেন না । এটা অবশ্য আমরা সবাই ই কমবেশী জানি যে, ভাত খেয়েই ঘুমোতে যাওয়া উচিত নয় । কারণ এতে খাদ্য ভালোভাবে হজম হয় না । ফলে গ্যাস্ট্রিক এবং ইন্টেস্টাইনে ইনফেকশন হয় ! ৭) হাটা চলা করবেন না ! অনেকেই বলে থাকেন যে , খাবার পর ১০০ কদম হাটা মানে আয়ু ১০০ দিন বাড়িয়ে ফেলা ! কিন্তু আসলে বিষয়টা পুরোপুরি সত্য নয় । খাবার পর হাটা উচিত , তবে অবশ্যই সেটা খাবার শেষ করেই তাৎক্ষণিকভাবে নয় । কারণ এতে করে আমাদের শরীরের ডাইজেস্টিভ সিস্টেম খাবার থেকে প্রয়োজনীয় পুষ্টি শোষনে অক্ষম হয়ে পড়ে ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *