You cannot copy content of this page

বিদায়ী পৌরমাতা হয়েও দায়িত্ব নিয়ে করোনা মোকাবিলা করতে জীবাণুমুক্ত করলেন রাজপুর সোনারপুরের পাপিয়া হালদার

অম্বর ভট্টাচার্য, এবিপিতকমা, সোনারপুর, ১১ই জুন ২০২০ : রাজপুর সোনারপুর পৌরসভায় করোনা আক্রান্ত হচ্ছেন অনেকেই। সংখ্যাটা ধীরে ধীরে বেড়েই চলেছে। একসময় লকডাউন খুবই কড়াকড়ি করে যাতে মানুষ মানে তার জন্য নরেন্দ্রপুর থানা উদ্যোগী হয়েছিলেন। একই সাথে সোনারপুর উত্তর বিধানসভার বিধায়ক ফিরদৌসী বেগম ও মূল সংগঠক নজরুল আলি ম বাসস্ন্ডট্লযান্ড উদ্যোগ নিয়ে বিভিন্ন বাজার জীবাণুমুক্ত করিয়েছেন। বিধায়ক নিজে উদ্যোগী হয়ে বিধানসভায় খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেছেন।এমনকি ১৫দিন রান্না করা খাবার পৌঁছে দিয়েছেন প্রায় ২৫০০ মানুষকে। সেই একই রাস্তায় রাজপুর সোনারপুর পৌরসভার ১ নং ওয়ার্ডের পৌরমাতা পাপিয়া হালদার ১০দিন ওয়ার্ডের প্রায় ১০০০ মানুষকে রান্না করা খাবার দিয়েছেন। এমনকি ওয়ার্ডের বিভিন্ন বুথে শিশু খাদ্য থেকে সাধারণের জন্য খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেছেন।

এবার লকডাউনের শেষ পর্যায়ে এসে করোনা আক্রান্তের খবর আসতে শুরু করেছে এই ১ নং ওয়ার্ডে। পৌরসভার বোর্ড ভেঙে গেলেও তিনি নির্দিধায় তাঁর দায়িত্ব পালন করে গেছেন। গোটা ওয়ার্ডে তিনজন আক্রান্ত হতেই তিনি তিনদিন দায়িত্ব সহকারে নিজে উপস্থিত থেকে সংক্রমিত এলাকা সহ সি-৫ বাসস্ট্যান্ড, ট্যাক্সি স্ট্যান্ড, বালিয়া বাজার, শ্রীনগর মেন রোডে অবস্থিত ব্যাঙ্ক, দোকান, বাড়ি জীবাণুমুক্ত করার জন্য উদ্যোগী হন। বিদায়ী পৌরমাতার থেকে এই সহযোগিতা পেয়ে এলাকার মানুষ খুবই আপ্লুত কারণ তাঁরা মনে করছেন আজ তাদের এই অসহায় অবস্থাকে মাথায় রেখে কখনও পৌরসভাগত ভাবে বর্তমান প্রশাসকমণ্ডলীর সহযোগিতায় এবং আবার কখনও নিজের উদ্যোগে জীবাণুমুক্ত করিয়ে মানুষের সুস্থ থাকার ব্যাপারটাকে সহানুভুতির সাথে দেখলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *