You cannot copy content of this page

শোভন কেন্দ্র নিয়ে অসন্তুষ্ট, বৈশাখীর কোন কেন্দ্র নেই, তাই অভিমানে শো – বৈ

অম্বর ভট্টাচার্য, এবিপিতকমা, কলকাতা, ১৪ই মার্চ ২০২১ : আজ রাজ্য বিজেপি অনেক চিন্তা ভাবনা করে তৃতীয় ও চতুর্থ দফা নির্বাচনের প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করে। সেই তালিকায় অনেক পুরাতন নেতৃত্বের নাম নেই, আবার নব্যদের নাম থাকায় বিক্ষোভ শুরু হয়ে গেছে। জয় ব্যানার্জি ক্ষোভে ফেটে পড়েন। তিনি বলেন, দল যদি পুর্নবিবেচনা না করে তবে দলত্যাগের প্রস্তুতি নেব। আবার রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্য তৃনমূলের প্রার্থী তালিকায় নাম না থাকায় বিজেপিতে যোগদান করেন। এবার তাঁকে বিজেপি সিঙ্গুর কেন্দ্রে প্রার্থী করে। এরপর তাঁকে ঘিরে চরম বিক্ষভে ফেটে পড়ে সিঙ্গুরের বিজেপি কর্মীরা, বিজেপি পার্টি অফিসও ভাঙচুর হয়।

একই ভাবে বেশ অসন্তুষ্ট হয়েছেন শোভন চ্যাটার্জি ও বৈশাখী ব্যানার্জি। শোভন চ্যাটার্জি দলকে আগেই জানিয়েছিলেন বেহালা পূর্ব বিধানসভা কেন্দ্রে তিনি প্রার্থী হতে চান। এই আসনে তৃনমূল প্রার্থী করেছে তাঁর প্রাক্তন স্ত্রী রত্না চ্যাটার্জি। তাই এই আসনে প্রার্থী হওয়াটা ছিল শোভনের কাছে একটা বড় চ্যালেঞ্জ। কিন্তু বিজেপি তাঁকে বেহালা পশ্চিম দেওয়ায় তিনি বেশ অসন্তুষ্ট।বেহালা পূর্বে বিজেপি অভিনেত্রী পায়েল সরকারকে প্রার্থী করে। এছাড়া বিজেপি-র প্রার্থী তালিকায় বৈশাখী ব্যানার্জি-র নাম নেই।এই দুই কারণে অভিমানে বিজেপি দলের দেওয়া সব পদ থেকে ইস্তফা দিলেন শো – বৈ (শোভন-বৈশাখী)। বিজেপির সঙ্গে সম্পর্ক ত্যাগ শোভন চট্টোপাধ্যায় ও বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ের। দলীয় নেতৃত্বকে চিঠি দিয়ে জানালেন শোভন ও বৈশাখী।

এরপর তাদের দুজনের রাজনৈতিক অবস্থান কি হবে তা জানা যায় নি। তবে অনেকেই বলছেন এখনও কংগ্রেস তাদের প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করেনি। অবশেষে কংগ্রেস দলটাই হয়তো খোলা থাকলো এই জুটির কাছে। এখন প্রশ্ন, তবে কি শোভন চ্যাটার্জি ঘনিষ্ট বান্ধবী বৈশাখীকে নিয়ে কি কংগ্রেসের দরজায় দাড়াবেন যদি দুজনেই এই নির্বাচনে প্রার্থী হতে পারে?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *