You cannot copy content of this page

সোনারপুর উত্তর বিধানসভার কর্মীদের নিয়ে সাংগঠনিক সভায় বিধায়ক

অম্বর ভট্টাচার্য, এবিপিতকমা, সোনারপুর, ১লা মার্চ ২০২১ : রাজ্যে নির্বাচনের দিন ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন এখন শুধু প্রার্থী তালিকা ঘোষণার অপেক্ষায়।সেই নির্বাচনকে মাথায় নিয়ে গতকাল সোনারপুর উত্তর বিধানসভায় সকল স্তরের তৃনমূল কর্মীদের নিয়ে রামচন্দ্রপুর সত্যনারায়ন গার্ডেনে সাংগঠনিক সভা করেন সোনারপুর উত্তর বিধানসভার বিধায়ক ফিরদৌসী বেগম। সোনারপুর উত্তর বিধানসভার ১৭টা ওয়ার্ড ও ৫টা পঞ্চায়েতের সকল রাজনৈতিক প্রতিনিধি, জনপ্রতিনিধিদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সোনারপুর পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি প্রবীর সরকার, খেয়াদহ ১ নং পঞ্চায়েতের প্রধান গোরাচাঁদ নস্কর, খেয়াদহ ২ নং পঞ্চায়েতের উপ প্রধান সীমা মজুমদার, বনহুগলী দুটি পঞ্চায়েতের চিরঞ্জিত বিশ্বাস, উদয় মন্ডল, পুর প্রতিনিধিদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন নীতু দাস, নমিতা দাস, সঞ্জিত চ্যাটার্জি, তরুণ কান্তি মন্ডল, কার্তিক বিশ্বাস, বিশ্বজিৎ দাস এবং রাজনৈতিক নেতৃত্বদের মধ্যে ছিলেন নন্দ দাস, অরুণ রায়, সুশান্ত দাস, কানাই কর্মকার, দেবাশিস দাশ, অরিন্দম দত্ত, সমরজিত ব্যানার্জি, পিন্টু দেবনাথ সহ অনেকে।

সাংগঠনিক সভা মঞ্চে বক্তব্য রাখেন সোনারপুর উত্তর বিধানসভার দক্ষ পরামর্শদাতা রাজপুর সোনারপুর পৌরসভার প্রশাসকমন্ডলীর সদস্য নজরুল আলি মন্ডল সকলের উদ্দেশ্যে বলেন, সামনে তৃনমূলের বিরোধীদের অপপ্রচার ও রাজনৈতিক কুৎসার বিরুদ্ধে এক বড় লড়াই অপেক্ষা করছে। বহিরাগত কিছু বিরোধী নেতৃত্ব এই রাজ্যে এসে মানুষের মধ্যে বিভাজনের বীজ বুনে যাচ্ছে। তারা ভাবছে এইভাবে তৃণমূলকে ভেঙে দেওয়া যাবে। কিন্তু মাথায় রাখতে হবে এই দলের প্রধান নেতৃত্বের নাম মমতা ব্যানার্জি। একজন মহিলাকে অপদস্ত করতে, মানসিক হেনস্থা করতে মাঠে নেমে পড়েছে দেশের বিভিন্ন রাজ্যের বিজেপি নেতৃত্ব। এর থেকে পরিস্কার হয়ে যাচ্ছে এই রাজ্যে বিজেপির কোন সংগঠন নেই যারা মমতা ব্যানার্জিকে রাজনৈতিক ভাবে মোকাবিলা করতে হিমশিম খাচ্ছে। মমতা ব্যানার্জির উন্নয়নকে মোকাবিলা করতে অক্ষম। রাজ্যের মানুষের মনের মনিকোঠায় মমতা ব্যানার্জির নাম গেঁথে আছে। প্রতিটা পরিবারের অন্তত একজন সদস্য মমতা ব্যানার্জির উন্নয়নের সাথে যুক্ত। আমাদের ৪০টা দিন মানুষের কাছে গিয়ে মমতা ব্যানার্জির উন্নয়নের প্রচার করতে হবে।

বিধায়ক ফিরদৌসী বেগম বলেন, আমাদের কাছের মানুষ মমতা ব্যানার্জি। সকলে আমরা মমতা ব্যানার্জির সক্রিয় কর্মী। আমরা দেখেছি মমতা ব্যানার্জি কোন শক্তির কাছে মাথা নোয়ান নি। আমাদের একটা সিদ্ধান্ত মমতা ব্যানার্জিকে তৃতীয়বারের জন্য মুখ্যমন্ত্রী হতে সাহায্য করবে। কোন প্ররোচনায় বা অপপ্রচারের সাথে আপোষ করবো না। উন্নয়নের স্বার্থে মমতা ব্যানার্জিকে সমর্থন করতে হবে। আজ দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী জ্বালানী তেলে ও গ্যাসের দাম মাত্রাতীত বৃদ্ধি করার ফলে মানুষ আজ বিপদগামী।

সব শেষে সোনারপুর উত্তরের সোশ্যাল মিডিয়া প্রতিনিধিরা দলীয় অ্যাপের বিশ্লেষণ করে বলে সকলে “দিদির দূত”, “বাংলা নিজের মেয়েকেই চায়”, “দিদিকে বলো” অ্যাপগুলো সকলের মধ্যে ছড়িয়ে দিতে হবে। সব ওয়ার্ডের জন প্রতিনিধি ও সোশ্যাল মিডিয়া প্রতিনিধিদের নিয়ে হোয়াটস অ্যাপ গ্রুপ তৈরি করতে হবে। সভা শেষে এব্যাপারে এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *