You cannot copy content of this page

গড়িয়া নবপল্লীতে যুব সমাজকে উদ্বুদ্ধ করতে আন্তঃ ক্লাব ফুটবল টুর্ণামেন্টে শুভাশিস, ফিরদৌসী সহ পৌর প্রতিনিধি

অম্বর ভট্টাচার্য, এবিপিতকমা, সোনারপুর, ২৯শে জানুয়ারি ২০২১ : নেতাজী সুভাষ চন্দ্রের ১২৫তম জন্মজয়ন্তী উপলক্ষে রাজপুর সোনারপুর পৌরসভার ২ নং ওয়ার্ডে প্রথমবার নবপল্লী শিশু উদ্যানে আমরা সবাই ক্লাব ও নবপল্লী উন্নয়ন সমিতির যৌথ উদ্যোগে অনুষ্ঠিত হল দুই দিন ব্যাপী দিবারাত্রী সম্প্রীতি কাপ-মিনি গোল ফুটবল প্রতিযোগিতা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। ২৩শে জানুয়ারি জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সূচনা হয়। তারপর এলাকার শিশুদের নিয়ে ছিল বসে আঁকো, আবৃত্তি, সঙ্গীত ও নৃত্য প্রতিযোগিতা। ২৪শে জানুয়ারি ছিল গড়িয়া অঞ্চলে জাতীয় ও ২ নং ওয়ার্ড অন্তর্ভুক্ত কলকাতা মাঠে প্রথম ডিভিশনে খেলা ফুটবলারদের সম্বর্ধনা অনুষ্ঠান। রঞ্জন, সুখেন চক্রবর্তী ও সুশান্ত পাল সহ প্রায় ৭০ জনকে সম্বর্ধনা দেওয়া হয়। এযাবতকাল এরকম বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠান ওয়ার্ডের মানুষ দেখেনি।তারা এতদিন দেখেছে এলাকার তৃনমূল নেয়াতাদের ইন্দনে কালোবাজারি মদ বিক্রি, গাঁজা বিক্রি, দিনেরাতে বোমাবাজি ও বাংলা বিক্রির ঠেক, কিন্তু এবার দেখল এক অন্য তৃনমূলী রূপ, এক সাংস্কৃতিক, এক সাম্প্রতিক তৃনমূল, এক অপরিচিত তৃনমূল।

বহু বছর পর এরকম একটা মনোরম ও মনোজ্ঞ অনুষ্ঠান উপহার পেয়ে এলাকার মানুষ বেশ আপ্লুত। সংগঠকদের পক্ষে প্রয়াত চুনী গোস্বামী ও পি কে ব্যানার্জিকে সাম্মান জানানো হয়। ফুটবল টুর্ণামেন্টে অংশগ্রহণ করে ২ নং ওয়ার্ডের মোট ১২টা ক্লাব দল। অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত ছিলেন দঃ ২৪ পরগণা জেলা তৃনমূল কংগ্রেস সভাপতি শুভাশিস চক্রবর্তী, সোনারপুর উত্তর বিধানসভার বিধায়ক ফিরদৌসী বেগম, গড়িয়া টাউন তৃনমূল কংগ্রেস সভাপতি ও রাজপুর সোনারপুর পৌরসভার প্রশাসকমন্ডলী সদস্য নজরুল আলি মন্ডল ও বিভাস মুখার্জি, রাজপুর সোনারপুর পৌরসভার ১ নং ওয়ার্ডের পৌরমাতা পাপিয়া হালদার সহ অনেকে। কিন্তু অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন না ২ নং ওয়ার্ডের বিদায়ী পৌরপিতা অমরেশ সরদার এবং আমন্ত্রণ পত্র না পেয়ে উপস্থিত হতে পারেন নি অশোকা মৃধা।কিন্তু উদ্যোক্তাদের পক্ষে জানানো হয় গড়িয়ার সব ওয়ার্ডের পৌর প্রতিনিধিদের আমন্ত্রন করা সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল, কিন্তু কি কারণে তাদের আমন্ত্রন পত্র পৌছায় নি তা খতিয়ে দেখা হবে। এই অনুষ্ঠানের প্রস্তুতি সভায় বহুবার সুব্রত মন্ডল ও শুক্লা মন্ডলকে আসতে বলা হলেও উপস্থিত হন নি। ১২টা ক্লাবের মধ্যে ফুটবল টুর্নামেন্টে জয়ী হয় আদিবাসী সবুজ সংঘ ও রানার্স হয় নবপল্লী আমরা সবাই।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত থেকে দঃ ২৪ পরগণা জেলা তৃনমূল কংগ্রেস সভাপতি ও রাজ্য সভার সাংসদ শুভাশিস চক্রবর্তী সংগঠকদের এই উদ্যোগকে ভুয়সী প্রশংসা করে বলেন, আমি আজ এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়েছি শুধুমাত্র এই ওয়ার্ডের একজন দক্ষ সংগঠক সুকান্ত মন্ডলের অনুরোধে। এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে সত্যিই আমি অভিভূত। এত সুন্দরভাবে শিশুদের নিয়ে বিভিন্ন অনুষ্ঠান ও একটা ওয়ার্ডের সব ক্লাবকে একসাথে করে এই ধরনের একটা ফুটবল টুর্নামেন্ট অভাবনীয়। এতে এলাকার নতুন প্রজন্ম উৎসাহিত ও অনুপ্রানিত হবে। এলাকার একটা সুস্থ পরিবেশ তৈরি হবে। অনুষ্ঠানে বিধায়ক ফিরদৌসী বেগম, নজরুল আলি মন্ডল ও সোনারপুর পঞ্চায়েত সমিতি সভাপতি প্রবীর সরকার, বিভাস মুখার্জি, পাপিয়া হালদার, সমরজিত ব্যানার্জি ও পিন্টু দেবনাথের উপস্থিতি মাত্রা বাড়িয়ে দেয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *